জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

মহাপরিচালক

জনাব মোঃ জহুরুল ইসলাম রোহেল, পিতা-ওয়াসিল আলী, মাতা-জাহানারা বেগম চৌধুরী ১ জুন, ২০২০ তারিখে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলে যোগদান করেন। তিনি ৩০ মে, ২০২০ তারিখ পর্যন্ত অতিরিক্ত সচিব হিসেবে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে কর্মরত ছিলেন।

 

তিনি মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলার দক্ষিণভাগ ইউনিয়নের সফরপুর গ্রামে ১৯৬৫ সালের ১৬ মে জন্ম গ্রহন করেন। তিনি দক্ষিণভাগ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়াশোনা শেষ করে দক্ষিণভাগ এন,সি,এম উচ্চ বিদ্যালয়ে অধ্যয়ন কালে বড় ভাই এর কর্মস্থল উখিয়া কক্সবাজারে চলে যান এবং উখিয়া হাই স্কুল থেকে ১৯৮১ সালে এস, এস, সি, সরকারী এম, সি ইন্টারমিডিয়েট কলেজ, সিলেট থেকে ১৯৮৩ সালে এইচ, এস, সি পরীক্ষা পাশ করেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় হতে ব্যবস্থাপনা বিষয়ে ১৯৮৬ সালে অনার্স এবং একই বিশ্ববিদ্যালয় হতে ব্যবস্থাপনা বিষয়ে ১৯৮৭ সালে মাষ্টার্স ডিগ্রী অর্জন করেন। এরপর তিনি নর্দান বিশ্ববিদ্যালয় হতে ২০০৯ সালে ব্যবসায় প্রশাসনে মাষ্টার্স (ফিনান্স) ডিগ্রী, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় হতে ২০১০ সালে এলএলবি ডিগ্রী এবং নর্দান বিশ্ববিদ্যালয় হতে ২০১১ সালে গর্ভানেন্স স্টাডিজ-এ মাষ্টার্স ডিগ্রী অর্জন করেন। বর্তমানে তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে PhD কোর্সে “MIGRANTS OF DHAKA CITY DUE TO NATURAL DISASTER: A GEOGRAPHICAL ASSESSMENT” বিষয়ে গবেষণা করছেন।

 

তিনি ১১তম বিসিএস এর মাধ্যমে ১লা এপ্রিল ১৯৯৩ সালে সহকারী কমিশনার ও ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়, রাজশাহীতে প্রথম যোগদান করেন। তিনি ৮ই এপ্রিল’ ১৯৯৩ রংপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে, সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে রংপুর জেলার সদর উপজেলা, তারাগঞ্জ উপজেলা ও কাউনিয়া উপজেলায় প্রায় সাড়ে পাঁচ বৎসর ভূমি ব্যবস্থাপনার সাথে জড়িত ছিলেন। তিনি সিনিয়র সহকারী কমিশনার ও প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে রংপুরে, নরসিংদীতে সহকারী পরিচালক স্থানীয় সরকার ও প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে, উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ এবং সিলেট জেলার গোয়াইনঘাট উপজেলায় দায়িত্ব পালন করেন। তিনি দীর্ঘ ১৪ বৎসর মাঠ প্রশাসনে দায়িত্ব পালন করেন। অতঃপর তিনি সিনিয়র সহকারী সচিব হিসেবে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি উপসচিব হিসেবে খাদ্য বিভাগ, খাদ্য ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, জেলা প্রশাসক গাইবান্ধা, উপ-সচিব, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রীর একান্ত সচিব, যুগ্ম সচিব এবং অতিরিক্ত সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

 

তিনি তাঁর ২৮ বৎসরের চাকুরী জীবনে অনেক আর্ন্তজাতিক প্রোগামে যোগদান করেন। সেগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- (১) মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা প্রশিক্ষণ, মাহিদুল ইউনির্ভাসিটি, ব্যাংকক, থাইল্যান্ড, (২) দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার শহরের গরীব লোকদের স্বাস্থ্য বিষয়ক রিজিওনাল কনসালটেশন প্রশিক্ষণ, WHO , মুম্বাই ইন্ডিয়া, (৩) কমনওয়েলথ দিবস উদ্যাপন, মালদ্বিপ, (৪) ড্রাগস এবং ক্রাইম সংক্রান্ত এক্সপার্ট গ্রুপ মিটিং, দিল্লি, ইন্ডিয়া (৫) টোবাকো নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত মিটিং, নেপাল (৬) মক্কা, সৌদি আরবে বাংলাদেশ হজ্জ মিশনে হজ্জ প্রশাসনিক দল/২০১২, (৭) সৌদিআরবের রিয়াদে বাংলাদেশীদের সাধারন ক্ষমার/২০১৩ আওতায় Consular Team এ সৌদিস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে দায়িত্ব পালন করেছেন. (৮) নর্থ ক্যারোলিনা আমেরিকায় বিসিএস ক্যাডার কর্মকর্তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধির মাধ্যমে সরকারকে শক্তিশালী করণ প্রকল্পে অংশগ্রহণ করেন।

 

তিনি ভারত, সিংগাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া, চীন, জাপান, জার্মানী, রাশিয়া, সুইজারল্যান্ড, ফিনল্যান্ড, সুইডেন, নরওয়ে, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, অষ্ট্রেলিয়া ও কানাডাসহ বিশ্বের অনেক দেশ ভ্রমণ করেছেন।

 

জনাব মোঃ জহুরুল ইসলাম রোহেল বিবাহিত। তাঁর স্ত্রীর নাম ফারহানা চৌধুরী, তাঁদের একটি পুত্র ও একটি কন্যা রয়েছে।


Share with :

Facebook Facebook